Breaking News

ইন্সট্যান্ট গ্লো পাবার কিছু টিপস জানুন কেয়া শেঠের থেকে।

ঘরে বসে দিনের পর দিন মুখে গুচ্ছের ফেস প্যাক লাগিয়ে ত্বককে উজ্জ্বল করার ধৈর্য এখন কারুরই নেই। আমরা সবাই এখন ব্যস্ত মানুষ। অফিসের চাপ, বাড়িতে সংসার ছেলেমেয়ে আর কর্তাকে সামলানোর চাপ—সব মিলিয়ে আপনার ব্যস্ততারও শেষ নেই। পার্টি বা বিয়েবাড়ির দিন সকালে উঠে পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল—এতেই আপনি এখন স্বচ্ছন্দ। ইন্সটান্ট গ্লোও দেয় ওতে। ঠিকই। কিন্তু জানেন কি, পার্লারে অধিকাংশ সময়েই ফেসিয়ালে বিভিন্ন আর্টিফিশিয়াল জিনিস ব্যবহার করা হয়।

ওতে আপনার ত্বক সাময়িকভাবে উজ্জ্বল থাকলেও এর ফল হয় কিন্তু বেশ দীর্ঘমেয়াদি। কে না জানে, ওইসব আর্টিফিশিয়াল হাবিজাবি মুখে বেশী না লাগানোই ভালো। অথচ বিয়েবাড়ির সকালে ইন্সট্যান্ট গ্লো পেতে ওগুলো ছাড়া উপায়ও নেই! কি! চিন্তায় পড়ে গেলেন তো? ইন্সট্যান্ট পার্টি লাইক গ্লো তো চাই, কিন্তু সেও যদি হয় ঘরোয়া উপায়ে? সম্ভব সম্ভব! আর সেইজন্যই আপনাদের জন্য আজ হাজির করেছি কেয়া শেঠের স্পেশাল বিউটি টিপস, আপনার মুখকে ইন্সট্যান্ট গ্লো দেবার জন্য।

নিয়ম করে মুখ পরিষ্কার রাখেন তো? জানি, কাজ শেষে রাজ্যের আলিস্যি আপনাকে পেয়ে বসে। তখন বিছানায় শুয়ে ধপ করে ঘুম দিলেই হয়! কিন্তু তা বললে তো চলবে না! মুখকে রোজ পরিষ্কার না করলে কিন্তু ময়লা জমে আপনার এক্কেবারে যাচ্ছে তাই হাল হবে। তখন হাজার ইন্সট্যান্ট গ্লোয়ের চটপটে টিপস ফলো করেও কোনো উপকারই পাবেন না! তার থেকে মুখকে রোজ অন্তত একবার ভালো করে পরিষ্কার করুন। বাকি সবের দায়িত্বে না হয় কেয়া শেঠ আর ‘দাশবাস’ তো আছেই।

মুখ পরিষ্কার,কাঁচা পেঁপের মাস্ক,পেঁপের মধ্যে এমনিতেই প্যাপেইন নামক উৎসেচক থাকে, তাছাড়া পেঁপের মধ্যে থাকা অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট আপনার মুখকে চটজলদি গ্লো দিতে পারে। কোথাও যাবার যদি খুব তাড়া থাকে, তাহলে এক টুকরো কাঁচা পেঁপে আপনার আলাদিনের আশ্চর্য প্রদীপ হতেই পারে। উপকরণ:এক টুকরো কাঁচা পেঁপে গ্রেট করা,কাঁচা পেঁপের মাস্ক,পদ্ধতি: গ্রেট করা কাঁচা পেঁপে নিয়ে সারা মুখে ভালো করে মেখে ১৫-২০ মিনিট বসে থাকুন। তারপর জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। তারপর ইন্সট্যান্ট গ্লো কাকে বলে, নিজেই দেখে নেবেন।

চা, মধু আর চালের গুঁড়ো,চায়ের মধ্যে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট যে থাকে, তা আপনি জানেনই। আর মধুর মধ্যে থাকে ভিটামিন আর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট, যা আপনার মুখকে নিমেষে উজ্জ্বল, আর্দ্র করে তোলে। আর সমস্ত রুক্ষতা দূর করে দেয়। আর সেইসাথে চালের গুঁড়ো স্ক্রাব করে আপনার মুখের মরা চামড়া সহজে দূর করে মুখকে গ্লোয়িং করে তোলে।

উপকরণ: ১ কাপ চায়ের লিকার,১ চামচ মধু,১ কাপ চালের গুঁড়ো,পদ্ধতি: একটা বাটিতে সমস্ত উপকরণ নিয়ে মিশিয়ে মিশ্রণটি ভালো করে মুখে, গলায় ম্যাসাজ করে মেখে নিন। ৩০ মিনিট রাখুন। তারপর ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। জলদি গ্লোয়ের জন্য জলদি টিপস! ফ্রুট ফেস প্যাক,অবাক হচ্ছেন? আপনার ত্বককে হেলদি রাখার জন্য আর আপনি নিজে হেলদি থাকার জন্য ফল তো রোজ খান। কিন্তু কেয়া শেঠের খাস পরামর্শ মতো এবার একবার ফল মুখে মেখেই ফল দেখুন না! জানেনই ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেলস, অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। তাই ইন্সট্যান্ট গ্লোয়ের অব্যর্থ ফল পাবার জন্য এবার ব্যবহার করুন এই চটজলদি ফ্রুট ফেস প্যাক।

উপকরণ: অর্ধেক কলা,অর্ধেক টমেটো,৪-৫ টা আঙুর,১/৪ অংশ শসা,১ চামচ ব্র্যান্ডি,২ চামচ মুলতানি মাটি, পদ্ধতি: কলা, আঙুর, টমেটো আর শসা ভালো করে স্ম্যাশ করে নিন। এরপর ওতে ব্র্যান্ডি আর মুলতানি মাটি মিশিয়ে একটা পেস্ট মতো বানান। জলদি জলদি এটা মুখে মেখে ২০ মিনিট মতো রাখুন, তারপর ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। কি? হাতেনাতে ফল পেয়েছেন তো?

কাঁচা হলুদ আর বেসনের ফেস প্যাক,সুন্দরী রূপসীদের রূপচর্চায় কাঁচা হলুদের ব্যবহার যে কবে থেকে এর উত্তর আমরা দিতে অক্ষম। তবে একটা সিক্রেট জানাই। জানেন তো বিয়ের আগে গায়ে হলুদ হয়? এটা বিয়ের একটা অত্যাবশ্যকীয় অনুষ্ঠান বটে। কিন্তু কানে কানে বলি, আমাদের বিশ্বাস এটাও ওই বর-কনে যাতে ইন্সট্যান্ট গ্লোয়ের ছটায় আমার-আপনার চোখ ধাধিয়ে দিতে পারে, তারই একটা নামান্তর! কাঁচা হলুদে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট আর কারকিউমিন থাকে, রূপের জেল্লায় যার জুড়ি নেই! আর বেসন যে ত্বককে উজ্জ্বল করে, সে ইতিহাসও বেশ প্রাচীন। তাই এই ফেস প্যাকটি তাড়াহুড়োর সময় নির্দ্বিধায় ট্রাই করতে পারেন।

উপকরণ: ২ চামচ কাঁচা হলুদবাটা,১ চামচ বেসন,১ চামচ দুধ,কাঁচা হলুদ আর বেসনের ফেস প্যাক, পদ্ধতি: কাঁচা হলুদবাটা, বেসন, দুধ একসাথে মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে মেখে ফেলুন। ২০ মিনিট মতো রাখার পর ধুয়ে ফেলুন। এবার আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে একবার দেখুন দিকি! নিজেই চমকে যাবেন!,ডিমের ফেস প্যাক, শুনেই নাক সিটকোবেন না। ডিম কিন্তু আপনার মুখের চামড়াকে টানটান করে অ্যান্টি-এজিং উপাদান হিসেবে কাজ করে, আর মুখে ইন্সট্যান্ট গ্লোও ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে।

উপকরণ:ডিমের সাদা অংশ ১ টা,মধু ২ চামচ পদ্ধতি: ডিমের সাদা অংশ আর মধু একসাথে ভালো করে মিশিয়ে মুখে মেখে ফেলুন। নাক বন্ধ করে একটু গন্ধ সহ্য করে থাকুন। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ডিমের কামাল তখনই দেখতে পাবেন। তাহলে আর দেরী কীসের? আপনার মুখকে নিমেষে গ্লোয়িং করে তোলার জন্য এক গুচ্ছ স্পেশাল কেয়া শেঠ আর ‘দাশবাস’ টিপস নিয়ে এলাম। আমরা আমাদের কাজ করেছি। এবার আপনিও আপনার কাজে লেগে পড়ুন। ম্যাড়মেড়ে স্কিনকে বলুন টাটা। আর ইন্সট্যান্ট গ্লোকে দেখান গ্রিন সিগন্যাল।

Check Also

নিমিষেই পাকা চুল কালো করবে এই প্যাক

চুলকে নানা রঙে রাঙানো বর্তমানে এক ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে। তবে পাকা চুল কালো করার জন্য …