Breaking News

এইভাবে ‘চিংড়ি মাছের দোপিয়াজা’ বানালে স্বাদ হবে দুর্দান্ত, গরম ভাতের সাথে পুরো জমে যাবে

মাছ ভাত প্রিয় বাঙালির খাদ্যতালিকায় মাছের মধ্যে চিংড়ির স্থান বেশ উপরে দিকে। দুপুর বেলা খাওয়ার সময় কিংবা রাতের মেনুতে গরম ভাতের সাথে চিংড়ির যেকোনো পদ বাঙালি মাত্রই খুব পছন্দের। আজকের চিংড়ি দোপেয়াঁজাও সবারই ভাল লাগবে।

উপকরণ : ১. মাছ, ২.পেঁয়াজ, ৩.হলুদ গুঁড়ো, ৪.নুন, ৫.এলাচ, লবঙ্গ, দারুচিনি, ৬.লঙ্কার গুঁড়ো, ৭.ধনে গুঁড়ো, ৮.টকদই, ৯.চিনি, ১০.আদা বাটা, ১১.রসুন বাটা, ১২.সাদা তেল

প্রণালী : রান্না শুরু করার আগে ৪ টুকরো চিংড়িকে ভালো করে ধুয়ে দিয়ে ভাল করে নুন হলুদ মাখিয়ে নিতে হবে। এর পরে কড়াইতে দিয়ে দিতে হবে ২ টেবিল চামচ সাদা তেল। সর্ষের তেলে রান্না করলেও এর স্বাদে কোনো পরিবর্তন হবে না। তেল গরম হয়ে এলে নুন এবং হলুদ দিয়ে দিয়ে মাখিয়ে রাখা চিংড়িগুলিকে ভালো করে ভেজে নিতে হবে। চিংড়ি কড়া করে ভাজলে শক্ত রবারের মতো হয়ে যাবে। তাই হালকা করে ভেজে নিতে হবে।

মাছ ভাজা হয়ে গেলে ওই তেলেই ফোড়নের জন্য দিয়ে দিতে হবে ১ টুকরো দারচিনি , ৩টি এলাচ এবং ৪টি লবঙ্গ। ফোড়ন হালকা ভাজার পরে সুগন্ধ বেরোতে শুরু করলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১/২ কাপ পেয়াঁজ কুচি। পেয়াঁজ একটু ভাজা ভাজা হয়ে গেলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১ চামচ আদা এবং রসুন বাটা ,১ চামচ হলুদ গুঁড়ো , ১ চামচ লংকার গুঁড়ো , ১ চামচ ধনে গুঁড়ো আর পরিমাণমতো জল।

সমস্ত মশলাকে ভালো করে কষিয়ে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ২ টেবিল চামচ টক দই। সমস্ত উপকরণকে ভালো করে মিশিয়ে স্বাদমতো নুন এবং চিনি দিয়ে দিতে হবে। আবার একটু জল দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিতে হবে। এর পরে ভেজে রাখা চিংড়ি মাছগুলিকে দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিতে হবে। ঝোল ভালো করে ফুটে এলে পেয়াঁজের পাপড়ি ঝোলের মধ্যে দিয়ে মিনিট দুয়েক রান্না করে নিতে হবে। এইভাবেই তৈরী হয়ে যাবে সুস্বাদু চিংড়ির দোপেয়াঁজা।

Check Also

রান্না করার সময় মেনে চলুন সহজ পাঁচটি টিপস

রান্না করতে আমরা অনেকেই ভালবাসি, কিন্তু রান্না করার সময় যদি কয়েকটা নিয়ম মেনে চলতে পারেন, …