Breaking News

গরমে অয়েলি স্কিনের দুই ফেস প্যাক! ট্রাই করুন স্কিন হবে মোলায়েম

এসে গেছে গরম, আর শুরু হয়ে গেছে অয়েলি স্কিনের জ্বালাযন্ত্রণা। এই সময়টায় না যায় শান্তিতে মেকআপ করা না যায় বাইরে বেরোনো। গরমে ত্বকের তেল চিটচিটে ভাব আটকানোর জন্য কতো কিছুই না করতে হয়। সবচাইতে সহজ উপায় হচ্ছে ঘরোয়াভাবে বানানো ফেস প্যাক ব্যবহার করা। রোজকার জীবনে ব্যবহৃত দ্রব্য দিয়ে বানানো ফেস প্যাক সিবাম ও অ্যাকনে নিয়ন্ত্রণে রাখে। আর রোদের তাপে উবে যাওয়া ময়েশ্চারের কারণে আহত ত্বককে করে তোলে আকর্ষণীয়। সামার স্পেশাল অয়েলি স্কিনে এই দুই ফেস প্যাক ট্রাই করুন, স্কিন থাকবে মোলায়েম ২৪ ঘন্টা।

১. মুলতানি মাটি ও গোলাপজলের ফেস প্যাকঃ কি কি উপকরণ লাগবেঃ মুলতানি মাটি – ১ টেবিল চামচ,গোলাপজল – ১ টেবিল চামচ,কিভাবে ফেস প্যাক ব্যবহার করবেনঃ বাটিতে মুলতানি মাটি ও গোলাপজল মিশিয়ে ভালো করে নাড়তে থাকুন যতক্ষণ না পর্যন্ত ভালো একটি কনসিসটেন্সি তৈরি হচ্ছে। এরপরে এই ফেস প্যাকটি মুখে ও ঘাড়ে সমান করে লাগিয়ে নিন এবং শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে আসলে কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। মুখে যেন মাটির কণা লেগে না থাকে। সবশেষে স্কিনের ধরণ বুঝে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। সপ্তাহে তিনদিন এই ফেস প্যাকটি ব্যবহার করবেন।

কেন এই প্যাকটি ব্যবহার করবেনঃ গরমে তেল চিটচিটে ও ব্রণ ভরা ত্বককে শুকনো ও মোলায়েম করতে মুলতানি মাটির জুড়ি নেই। এটি সিবাম ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ করে ত্বকে ম্যাট ইফেক্ট এনে দেয়। পাশাপাশি ক্লগড পোরগুলোকে পরিষ্কার করে, ফলে ব্রণ নির্মূল হয়। নতুন করে ব্রণ বা অ্যাকনে হওয়ার চান্স কমিয়ে ফেলে। গোলাপজল ত্বকের ইরিটেশন ও ইনফ্লেমেশন কমিয়ে দেয় ও স্কিনকে দিনভর হাইড্রেটেড রাখে। ফলে ত্বক থাকে নরম ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল।

২. গোলাপজল বেন্টোনাইট ক্লে টি ট্রি অয়েল ফেস প্যাক,কি কি উপকরণ লাগবেঃ খাঁটি গোলাপজল – ২ টেবিল চামচ,বেন্টোনাইট ক্লে – ২ টেবিল চামচ,টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল – ৫-৬ ফোঁটা,কিভাবে ফেস প্যাক ব্যবহার করবেনঃ একটি মিক্সিং বোলে প্রথমে গোলাপজল আর বেন্টোনাইট ক্লে একসাথে মিশিয়ে নাড়তে থাকুন। টুথপেস্টে যেরকমের কনসিসটেন্সি থাকে, ঠিক সেরকম কনসিসটেন্সি না আসা পর্যন্ত মিশ্রণটি নাড়তে থাকুন। এরপরে এতে টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল দিয়ে আবারও ভালো করে নাড়ুন।

এবারে প্যাকটি মুখে ও ঘাড়ে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন শুকানোর জন্য। ঠান্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন এবং হালকা, জেল টাইপের ময়েশ্চারাইজার ত্বকে অ্যাপ্লাই করুন। এতে স্কিন হাইড্রেটেড থাকবে এবং ফেস প্যাক আরো ভালোভাবে কাজ করবে। এই ফেস প্যাকটি সপ্তাহে দুইদিন ব্যবহার করতে পারেন।

কেন এই প্যাকটি ব্যবহার করবেনঃ বেন্টোনাইট ক্লে তে আছে অয়েল-এবজরবেন্ট উপাদান, যা ত্বক থেকে বাড়তি সিবাম সরিয়ে ফেলে। এটি বন্ধ হয়ে যাওয়া পোরগুলো পরিষ্কার করে অ্যাকনে হওয়ার ঝুঁকি কমায়। আবার পুরাতন অ্যাকনেগুলোকেও পরিষ্কার করে এই ক্লে।

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিসেপ্টিক উপাদানে ভরপুর টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল অ্যাকনের জীবাণুর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। ফলে অ্যাকনে থেকে হওয়া চুলকানি ও অন্যান্য সমস্যা থেকে ত্বক সুরক্ষিত থাকে। বেন্টোনাইট ক্লে ও গোলাপজলের সম্মিলিত অ্যাকশনে রুক্ষ, অসমান ত্বক হয়ে যায় সফট এবং গ্লোয়িং। এমনকি কাঠফাটা রোদেও মুখ দেখায় চকচকে।

Check Also

চুল লম্বা ও মজবুত করার টিপস দিলেন জাবেদ হাবিব

জাবেদ হাবিবের নাম শোনেন নি এমন রমণী গোটা ভারতে হাতে গুনে পাওয়া যাবে! হ্যাঁ ঠিক …