Breaking News

চিড়িয়াখানায় জেব্রার সাথে দুষ্টুমি করার সময় বিপদে পড়ে গেল ছোট বাচ্চা, তুমুল ভাইরাল হয়েছে চিড়িয়াখানার ভিডিওটি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বন্য পশু পাখিগুলো চিড়িয়াখানা থাকতে-থাকতে দুরন্ত চালাক হয়ে পড়েছে। এগুলো এখন চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যাওয়া মানুষদের সাথে দুষ্টুমিতে মেতে উঠে সবসময়। বিশেষ করে বাচ্চাদের সাথে খেলা করতে পছন্দ করে এই বন্য প্রাণীগুলো।বর্তমানে চিড়িয়াখানাগুলোতে বিভিন্ন প্রাণীর খাঁচাগুলো বেষ্টন করে দিয়েছে কাচ দিয়ে। যার কারণে এই চিড়িয়াখানার প্রাণী গুলো চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যাওয়া মানুষদের খুব কাছাকাছি যেতে পারে। এবং তাদের সাথে বিভিন্নভাবে খেলাধুলা দুষ্টুমি করতে দেখা যায়।

বর্তমানে ইউটিউবে ভাইরাল ভিডিও গুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে চিড়িয়াখানার এই ভিডিওগুলো। চিড়িয়াখানায় ঘুরতে গিয়ে বন্যপ্রাণী গুলোর সাথে বিভিন্নভাবে খেলাধুলা দুষ্টুমি করার ভিডিও ধারণ করে থাকে। এবং তা ইউটিউব সহ বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করা হয়ে থাকে। আপনার সাথে সাথে খুব তাড়াতাড়ি ভিডিও সকলের কাছে ছড়িয়ে পড়ে এবং খুব তাড়াতাড়ি ভাইরাল হয়ে পড়ে।

চিড়িয়াখানাতে হিংস্র প্রাণী গুলোকে কাচের বেষ্টন করা খাঁচার মধ্যে বন্দী করে রাখে। আর শান্ত স্বভাবের প্রাণীগুলো উন্মুক্ত করে রাখা হয়েছে। শান্ত স্বভাবের প্রাণীগুলোকে বিভিন্ন খাবার দাবার খাওয়ানোর ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যাওয়া লোকজন তাদেরকে খাবার খাওয়া এবং বিভিন্ন কিভাবে বিনোদন দেওয়ার চেষ্টা করে এই প্রাণীগুলো। এদের মধ্যে রয়েছে জিরাফ, বানর, দুম্বা অন্যান্য পশুপাখি। সাধারণত যে পাখি গুলো আক্রমণাত্মক নয় সে গুলোকে এভাবে উম্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। কেননা তারা মানুষের খুব কাছাকাছি থাকলেও মানুষের কোন ক্ষতি করার চেষ্টা করেনা।

কিন্তু হিংস্র প্রাণী গুলো কাচের বেষ্টন করা খাঁচার মধ্যে বন্দী করা থাকে। কেননা এই প্রাণীগুলো মুক্ত করা থাকলে যেকোনো সময় যে কারোর উপর আক্রমণ করে বসতে পারে। কিন্তু কাচের বেস্টন করা খাঁচার ভিতর থাকলেও থেমে নেই তাদের বিনোদন দেওয়া। বিশেষ করে চিড়িয়াখানা ঘুরতে যাওয়া বাচ্চাদের সাথে দেহের বিভিন্ন অঙ্গ ভঙ্গির মাধ্যমে খেলাধুলা করে থাকে। এতে বাচ্চারা যেমন মজা পায় তেমনি এই ভিডিওগুলো ইউটিউব এ প্রচুর পরিমাণে ভাইরাল হয় এবং সকলের দেখার সুযোগ পায়।

সাধারণত হিংস্র প্রাণী গুলো মানুষের খুব কাছাকাছি থাকতে থাকতে তাদের হিংস্রতা ভুলে গিয়ে মানুষের বিভিন্ন আচার আচরণ রপ্ত করতে শিখে গিয়েছে। এই হিংস্র প্রাণী গুলো বাচ্চাদের সাথে খেলাধুলা করার বিষয়টি বেশ অবাক করার মত।শুধুমাত্র আচার-আচরণিই নয় তাদের খাদ্যাভ্যাসও পরিবর্তন ঘটেছে।বন্যপ্রাণীরা সাধারণত প্রাকৃতিক খাবার খেয়ে অভ্যস্ত। কিন্তু ভিডিওটি দেখলে বুঝতে পারবেন যে তারা প্রাকৃতিক খাবারের পাশাপাশি মানুষের হাত থেকে বিভিন্ন অর্গানিক খাবার খেয়ে থাকে।

এই ভিডিওটি থেকে আমরা বুঝতে পারি যে প্রত্যেকের আচার-আচরণ নির্ভর করে তার পরিবেশের উপর। কেননা এই প্রাণীগুলো জঙ্গলে বসবাস করে তারা মোটামুটি হিংস্র প্রকৃতির হয়ে থাকে। কেননা তাদের পরিবেশটাই এমন। বন্য পরিবেশে থাকতে হলে প্রত্যেক প্রাণীকে প্রত্যেকটা সময় যুদ্ধ করে থাকতে হয়। কেননা সেখানে প্রত্যেকটা প্রাণীর শত্রুর অভাব হয় না। যখন প্রত্যেকটা সময় বেঁচে থাকার জন্য যুদ্ধ করতে হয় তখন তারা আস্তে আস্তে হিংস্র হয়ে পড়ে। এবং এটাই প্রকৃতির নিয়ম। কিন্তু যখন তারা সামাজিক পরিবেশে এসে সম্পূর্ণ পরিবর্তন জীবন যাপন করে তখন তারা আস্তে আস্তে ওই প্রকৃতিক হিংস্রতা ভুলে গিয়ে সামাজিক পরিবেশের সামাজিক ভাবে বসবাস করতে শিখে যায়।

বিস্তারিত ভিডিওতে দেখুনঃ

Check Also

ডুবায় পড়ে থাকা খড়ের স্তূপ সরাতেই লংকা কান্ড! লুকিয়ে ছিল মাগুর ও পুটি মাছের ঝাক, সেকেন্ডের মধ্যেই বদলে গেল যুবকের ভাগ্য! ভাইরাল সেই ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন:কখন কি নিজের হাতে মাছ ধরেছেন? আপনি চাইলেই মাছ ধরতে পারবেন না মাছ ধরার …