Breaking News

জলের মধ্যে বাঘ আর সাপের তুমুল লড়াই, এক কামড়ে বাঘকে পরাস্থ করল অ্যনাকোন্ডা, রক্তে লাল হয়ে গেল পুরো জল, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন:আজকাল হরহামেশাই ইন্টারনেটে বিভিন্ন ধরনের ভিন্ন রকমের ভিডিও দেখা যায় যার মধ্যে অনেকগুলো ভিডিও হয়ে যায় ভাইরাল ।এমন কিছু ভিন্নধর্মী ভিডিও আছে যা দেখলে আপনার মন ছুয়ে যাবে। আবার এমন অনেক ভিডিও আছে যা আপনার মনকে ভেঙ্গে দিবে।

ইন্টারনেটের আদলে আমরা এরকম কিছু ভিডিও সম্মুখীন হই যা আমাদেরকে বন ও পরিবেশ নিয়ে বারবার ভাবিয়ে তোলে।এমন কিছু ভিডিও রাতারাতি ভাইরাল হয় নেট দুনিয়ায়।সেই ভিডিওতে গুলো আছে এক অসম্ভব বন্ধুত্ব এবং শত্রুতা ছাপ।বন্য পরিবেশে হচ্ছে পৃথিবীর একটি কঠিনতম জায়গা যে জায়গা নেই কোন মায়া দয়া। নেই কারো প্রতি কারো কোন ধরনের সদয়। যেখানে নিজের অস্তিত্বকে টিকিয়ে রাখার জন্য অন্যদের অস্তিত্বকে নষ্ট করতে রাজি সকলে।

এই বন্য পরিবেশে কেউ করছে শিকার আবার কেউ হচ্ছে শিকারী প্রাণীর ভোজনের একমাত্র আস্থা। এই পরিবেশে কেউ কারো নয় সবাই যার যার অস্তিত্বকে টিকিয়ে রাখার যুদ্ধে মেতে আছে।নিজেদের ক্ষুধার জ্বালা নিবারণ করার জন্য তারা যেকোনো কিছু করতে পিছুপা হয় না। হোক না সেটা যতই ঝুঁকির কাজ। জুকি থাকে তারা তাদের সেই শিকারকে তাদের শিকারে পরিণত করবে।

তাদের শিকার টি যদি স্থলে থাকে তারা সেই স্থলে থাকা প্রাণীটিকে নিজেদের খাবার রুপে শিকার করে। হলেও যদি তারা তাদের শিকার খুঁজে না পায় তাহলে তাদের লক্ষ্য থাকে জলজ প্রাণীর দিকে। তারা জলের প্রাণীদের কেউ আক্রমণ করতে পিছুপা হয় না। বাঘ ও সাপ তাদের মধ্যে থাকে সবসময় শত্রু থাকে।তার শত্রুতামি করতে পছন্দ করে।

সাপ সচারচর হরিণ, মোষ, উটপাখি,বাঘ বন্যশুয়োর প্রানী শিকার করে না। আমরা সকলে তা জানি কিন্তু বাঘ শিকার করা কথাটি কেমন অদ্ভুত শোনাই। বিশ্বাস না হলে ভিডিওটি একবার হলে দেখুন। কারন ক্ষুধার্ত পেট কখনো বাত বিচার করেনা। তো একবার কি হয়েছে কয়েকদিন ঠিকঠাক শিকার না পাওয়াই এক জাগুয়ার সাপ সিদ্ধান্ত নিল বাঘ শিকার করবে মানে এক হিংস্র প্রানী আরেক হিংস্র প্রানীকে শিকার করবে।

ব্যাস যেমনি ভাবা তেমনি কাজ সে জঙ্গলের এক গভীর জলাশয়ের ধারে গিয়ে অপেক্ষা করতে লাগলো দীর্ঘক্ষন ধরে। তারপর ধৈর্য হারিয়ে বাঘটি জলে নেমে পরে ও সাঁতরে আরেক পারে যেতে লাগে। তারপর বাঘটিকে দেখতে পাই ঐ পারে একটি বিশালাকার সাপ আরামে ঘুম দিচ্ছে। ব্যাস সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এদিকে বাঘ প্রথমে বুঝতে না পেরে থতমত হয়ে যায়। এরপর শুরু হয় দুজনের লড়াই কেউ দমবার নই।

বাঘ তার বড় বড় দাঁত দিয়ে সাপ কে আহত করে আবার সাপ ও তার ধারালো মুখ দিয়ে ছিন্নভিন্ন করে দেই। কয়েক মিনিট চলে এই একের বিরুদ্ধে পাঁচের লড়াই। সেই সময় রণক্ষেত্রে হাজির হয় আরও কয়েকটি বাঘ। এবার বিষয়টা একেবারেই অসম লড়াই হয়ে যাচ্ছিল বাঘ পক্ষে। একটিকেই কাবু কার সম্ভব হচ্ছিল না, তার ওপর আরও কয়েকটি সাপ যদি পাল্টা আক্রমণে নামে তবে প্রাণটাই খোয়া যেতে পারে।

এদের আক্রমণে অনেক মানুষের জীবন দিতে হয়েছে।মানুষ যদিও বুদ্ধির দিক দিয়ে বাঘের থেকে এগিয়ে কিন্তু শক্তি ও গতির দিক দিয়ে অনেক পিছিয়ে। সাহসিকতার দিক দিয়েও এরা অনেক এগিয়ে। এই ভিডিওটি দেখলে আপনার বাঘের প্রতি যে ধারণা রয়েছে তা খুব দ্রুত পাল্টে যাবে।

Check Also

অভিনব পদ্ধতিতে বিষ ও যন্ত্র ছাড়া খুব সহজে ইদুর মারার ফাঁদ বানানো যায়, একবার দেখলে আপনি বানাতে পারবেন। রইলো ভিডিও সহ স্টেপ বাই স্টেপ

নিজস্ব প্রতিবেদন: ইঁদুর একটি চতুর ও নীরব ধ্বংসকারী স্তন্যপায়ী প্রাণী। ইঁদুর প্রাণীটি ছোট হলেও ক্ষতির …