Breaking News

জে’নে রাখুন বিদ্যুৎ বিল কমানোর ৯টি কৌশল

গরম এলেই বেড়ে যায় বিদ্যুৎ বিল। কারণ বাতি, ফ্রিজ, কম্পিউটার, ওয়াশিং মেশিন, ওভেন, ব্লেন্ডার, আয়রন মেশিনসহ আরো অনেক কাজে বিদ্যুৎ খরচ তো হয়ই। তবে মাস শেষে বিদ্যুতের বিল এলে অনেকের মাথা ন’ষ্ট হয়। এসি ব্যবহার না করেও অনেকের ইউনিট বেশি পুড়েছে। জা’নেন এর কারণ কি? শুধু বিদ্যুতের বিল বাঁ’চাতে হবে এমন নয়, বিদ্যুৎ সংরক্ষণ ক’রতে হবে।  কিছু নিয়ম মেনে চললে এই বিলের খরচ কমানো যায়। আসুন জে’নে নেই বিদ্যুৎ বিল কমানোর ৯ কৌশল।

মোবাইল চার্জার থেকে খোলার পর অবশ্যই সুইচ ব’ন্ধ ক’রতে হবে বেশিরভাগ সময় এসি রিমোট দিয়ে ব’ন্ধ করার পর সুইচ ব’ন্ধ করি না।এতেও কিছুটা অতিরি’ক্ত ইউনিট পোড়ে। ব্যবহার করুন সিএফএল বা এলইডি লাইট। এসব লাইটের আলোয় ফিলামেন্টের তুলনায় সার্কিট ব্যবহার হওয়ায় বিদ্যুতের খরচ কমে।

যে কোনও বৈদ্যুতিক যন্ত্র কেনার সময় স্টার রেটিংয়ে ভরসা রাখু’ন। কোনও যন্ত্রের স্টার রেটিং বেশি হলে তার ইউনিট বাঁ’চানোর ক্ষ’মতাও ততোধিক।পুরনো তার, পুরনো যন্ত্র ব্যবহারে বিদ্যুৎ বিল বাড়ে। তাই দশ-পনেরো বছরের পুরনো যন্ত্র বা তার ব্যবহার না। আধুনিক যন্ত্র ব্যবহার করুন।

ঘন ঘন এসি চালু ও ব’ন্ধ করবেন না। চালিয়ে কিছুক্ষণ পর ব’ন্ধ করাই নিয়ম।রোদ পড়ে এমন জায়গায় এসির আউটলেট রাখবেন না। অনেকে মাথার উপরে একটি শেড করে দেন। এটিও ভুল ধারণা। এসি মেশিন রোদ-বৃষ্টির হাত থেকে বাঁ’চাতে ঢেকে রাখলে তাতে মেশিন খা’রাপ হয় তাড়াতাড়ি।

এসির তাপমাত্রা ২৪ ডিগ্রির নীচে নামাবেন না। তাতে বেশি ইউনিট খরচ হয়।দিনে এক ঘণ্টা করে ব’ন্ধ রাখু’ন ফ্রিজ। যন্ত্রও বিশ্রাম পাবে, বিদ্যুৎও বাঁচবে।নিয়ম করে সব যন্ত্রেরই সার্ভিসিং করান সময় মতো। এতে যন্ত্র ভাল থাকে ও কম বিদ্যুৎ টানে।

Check Also

শখের বসে করা ছাগলের খামারে তিন বছরে ১৫ লাখ টাকার বাজিমাত!

নিজস্ব প্রতিবেদন: নাম শিবলী নোমান। ২০০১ সালে এসএসসি পাশের পর নানা প্রতিবন্ধকতায় বন্ধ হয়ে গেল …