Breaking News

বন্য ছাগল শি,কার করতে এসে বেকায়,দায় পড়ল নেকড়ে বাঘ বন্য ছাগলের লম্বা শিং-য়ের গু’তো’য় প’রা’স্থ হল নেকড়ে বাঘ ,ইন্টার নেটে তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:বাংলাদেশের পার্বত্য জেলা বান্দরবানের মাতামুহুরী সংরক্ষিত বনে থেকে ধরে আনা একটি বিপন্ন প্রজাতির বন্য ছাগলের ছানা উদ্ধার করেছে বনবিভাগ। গেল বৃহষ্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) আলিকদমের দুর্গম একটি পাহাড়ি এলাকা থেকে উদ্ধারের পর ডুলাহাজরা সাফারি পার্কে হস্তান্তর করা হয় ছানাটি।তাছাড়া বুনো ছাগল ক্যাপরা গণের সবচেয়ে ব্যাপকভাবে বিস্তৃত প্রজাতি।

এদের বিস্তার ইউরোপ এবং আনাতোলিয়া থেকে মধ্য এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্য পর্যন্ত। গৃহপালিত ছাগল এই প্রজাতিরই একটি উপপ্রজাতি।দ্রুতগামী এবং শক্তিশালী প্রাণীদের মধ্যে সবার শীর্ষে রয়েছে চি,তা। চি,তা তার আকারের তুলনায় অনেক শক্তিশালী হয়ে থাকে। চি,তা বিড়াল শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত একটি প্রাণী। সমতল এবং পাহাড়ি বনভূমিতে এদের বসবাসএদের মধ্যে কিছু কিছু প্রজাতি আছে যারা একা চলাচল করে।

এরাই বনে রাজত্ব করে পৃথিবীর কিছু কিছু অঞ্চলে এদের বসবাস, পৃথিবীতে যত প্রাণী আছে সবচাইতে দ্রুতগামী হচ্ছে এরা। সমতল এবং পাহাড়ি পাহাড়ি বনাঞ্চলে বসবাস করে। তবে কিছু কিছু প্রজাতি সমতল ভূমি হিং,স্রবেশি লক্ষ্য করা যায়।এরা অন্য কোনো প্রাণীকে ভ,য় পায় না। বিশাল আকৃতির হাতিকেও এরা ভ,য় পায় না। শিকা,রির দক্ষতার দিক দিয়ে এরা খুব পারদর্শী। জানোয়ারের পরিচয় তার হিং,স্রতার মাধ্যমে।

আর চি,তা হচ্ছে সবচেয়ে বেশি হিং,স্র প্রাণী। আমাদের দেশের বিভিন্ন বন অঞ্চলেও এদের দেখা মিলে। অনেক সময় এরা বিভিন্ন লোকালয়ে প্রবেশ করে ফেলে। লোকালয় রাতের বেলা শিকারের সন্ধানে প্রবেশ করলে পরে রাস্তায় ভুলে গিয়ে রাতারাতি বের হতে না পারলে বিভিন্ন জায়গায় লুকিয়ে থাকে।এবং বিভিন্ন পোষা প্রাণী ও মানুষের উপর মাঝেমাঝে আক্রমণ করে বসে। এ ধরনের অনেক ভিডিও ইন্টারনেটে সচরাচর পাওয়া যায়।

আজকের এই ভিডিওতে দেখানো হয়েছে এই হিং,স্র চি,তাও মাঝেমধ্যে নিরীহ প্রাণীর হাতেই বিপদে পড়ে যায়। ভিডিওটিতে একটি চি,তা একটি বন্য ছাগলের উপর আক্রমণ করে। অনেকক্ষন ছোটাছুটির পর অবশেষে ছাগলটি কে সে ধরতে সক্ষম হয়। এবং তার গলায় কামড়ে ধরে। প্রথমত ছাগলটি যদিও প্রাণের ভ,য়ে পালাচ্ছিল কিন্তু পরে যখন চি,তার হাতে ধরা পড়ে যায় তখন সে উল্টো আক্রমণ করে বসে।

অনেকক্ষণ দুজনের ধস্তাধস্তির পর একসময় ছাগলটি তার লম্বা সিং দিয়ে চি,তাটির পেটের মধ্যে বসিয়ে দেয়। এবং চিত টি কোন উপায় না পেয়ে প্রাণ বাঁচানোর জন্য ছাগলটিকে ছেড়ে দেয়।ছাগলটি ছাড়া পেয়ে দৌড়ে পালিয়ে তার প্রাণ বাঁচিয়েছে। এই ভিডিওটি ইউটিউবে ছাড়ার সাথে সাথে তুমুল ভাবে ভাইরাল হয়। কেননা এই ভিডিওটিতে হরিণের সাহসিকতা দেখে প্রত্যেকেই অবাক হয়ে গিয়েছিল যে

চি,তার মতো একটি শক্তিশালী হিং,স্র প্রাণী কে কিভাবে কৌশলের মাধ্যমে আঘাত করে পালিয়ে গিয়ে নিজের প্রাণ বাঁচিয়ে ছিল। এই ভিডিওটি থেকে আমাদের অনেক কিছু শিখার আছে যে চেষ্টা করলে একসময় না একসময় অবশ্যই সফলতা পাওয়া যাবে।চেষ্টা না করার কারণে এই ছাগলটির মতো আরো শত শত ছাগল তার প্রাণ ফিরে পায় নি।

আমরা ও আমাদের জীবন এরকম বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিপদে পড়লে চেষ্টা না করে বিপদমুক্ত করতে চাই। কিন্তু এটি একটি ভুল পন্থা। আমাদের প্রত্যেকের উচিত এই ছাগলটির মতো বিপদে পড়লে যেন নিজের যতটুকু ক্ষমতা আছে ততটুকু দিয়েই প্রতিহত করা। চেষ্টা করলে অবশ্যই সফলতা পাওয়া যাবে।ছাগলটি কিভাবে তার জীবন বাঁচিয়েছে তা দেখতে উক্ত ভিডিওটি দেখতে পারেন।

Check Also

সমুদ্রের নীল তিমি কত টা ভয়ংকর হয়! সমুদ্র থেকে লাফ দিয়ে বক শিকার করে নেয় নীল তিমি,নেট দুনিয়াই ভাইরাল সেই ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন: মানুষ সামাজিক জীব।প্রাকৃতিক পরিবেশের মধ্যে সে জন্মে এবং সেখানেই বড় হতে থাকে।ফলে প্রকৃতির …