Breaking News

শুকিয়ে যাওয়া ডোবার মধ্যে হাটতে গিয়ে লঙ্কা কান্ড! ডোবার মধ্যে পেলেন কৈ মাছের ঝাক, রাতারাতি ভাগ্য বদল যুবকের, তুমুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:বাংলাদেশে দুই ধরনের কৈ মাছ চাষ হয়। এই ধরন দুটি হলো- বাংলাদেশের স্থানীয় কই বা দেশী কৈ ও থাই কৈ। চাষের ক্ষেত্রে চাষীরা থাই কৈ-কে সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন। কারণ প্রতি চার মাসে থাই কৈ-এর বৃদ্ধি যেখানে ৮০ থেকে ১০০ গ্রাম পর্যন্ত হয় সেখানে দেশী কৈ-এর বৃদ্ধি হয় মাত্র ২৫ থেকে ৩০ গ্রাম।আমরা অনেকেই মাছ ধরতে খুব পছন্দ করি।

বাঙ্গালীদের মধ্যে অনেকেপেশা আবার অনেকের নেশাও বটে। মানুষ জীবনধারণের জন্য ভিন্ন ধরনের পেশায় নিয়োজিত থাকে। গ্রামে মানুষের পেশার মধ্যে অন্যতম একটি পেশা হচ্ছে মাছ ধরা। আবার অনেকে শখের বসেও মাছ ধরে থাকে।প্রাচীন কাল থেকেই মানুষ খাদ্য ও আ্মিষের চাহিদা পূরণ করতে অন্যতম পরিপূরক হিসেবে মাছ শিকার করে খেয়ে আসছে। মাছ অতি সহজ লভ্য ও পুষ্টির এমন একটি ভান্ডার।

যার দ্বারা একজন মানব শরীরের পুষ্টি চাহিদা পূরণ করা যায়। মাছের বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান যা বেড়ে উঠতে অনেক সাহায্য করে। অনেকের কাছে মাছ শিকার করা একটি নেশার মতো। মাছ শিকার করা যেমন মজার তেমনি এর মাধ্যমে পারিবারিক পুষ্টি চাহিদা সহ রোজগার ও করা যায়। মাছ ধরা এক ধরনের প্রতিভা। সকলেই মাছ শিকার করতে পারে না। সময়ের ব্যবধানে ও উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে মাছ শিকার সহজ হলেও।

গ্রামীণ ও প্রাচীন পদ্ধতি গুলো মাছ শিকার করার কিছু সহজ মাধ্যম । গ্রাম্য পদ্ধতিতে মাছ শিকার করতে এক ধরনের ধৈর্যের পরীক্ষা হয়। অঞ্চলভেদে বিভিন্ন জায়গায় মাছ শিকার করার একক পদ্ধতি বিদ্যমান। সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে আমরা বিভিন্ন অঞ্চলের বিভিন্ন মাছ ধরা ও তাদের ঐতিহ্য সহকারে মাছ ধরা দেখতে পারি। এই সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের অন্যদের প্রাচীন পন্থা ও তাদের অবস্থান সম্পর্কে জানতে সাহায্য করে।

শুরুর দিক সোশ্যাল মিডিয়া শুধু মাত্র যোগাযোগের মাধ্যম হলেও । বর্তমানে নানান জনের নানান ভিডিও আপলোডের মাধ্যমে সহজেই আমরা জানতে পারি । আজকের এই ভিডিওটিতে একটি একটি ছেলে মাছ ধরার জন্য একটি হওড়ে যায়।এবং সেখানে গিয়েছে অনেক মাছ দেখতে পায়।বিভিন্ন ধরনের বড় বড় দেশীয় মাছ সে সেখান থেকে ধরতে থাকে। হাওরটিতে পানির পরিমাণ কমে যাওয়া কারণে মাছগুলো ডাঙ্গায় পড়েছিল।

গ্রাম্য পরিবেশে মাছ ধরতে কার না ভালো লাগে। যদি হাটতে গিয়ে মাছ পাওয়া যায় তখন সে ব্যাপারটা আরো অদ্ভুত হয়ে যায়। ঠিক এমনই ঘটনা ঘটে গ্রামের একটি কিশোরের সাথে ডুবাই হাটতে গিয়েই সে দেখতে পায় ছিল অনেক বড় বড় ঝাঁক। সেটি ভিডিও ধারণ করে ইন্টারনেটে দিলে এটি ইন্টারনেটের বদৌলতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল ভাবে ছড়িয়ে পড়ে। রাতারাতি সে ধারণকৃত ভিডিওটি হয়ে যায় ভাইরাল।

সকাল একটি কিশোর ডোবাতে হাঁটতে গিয়ে দেখতে পেলে এমন কাণ্ড। চোখকে বিশ্বাস করতে পারলো না যে সে কি দেখছে। সে ডোবার কাছে থাকা জুপ জারের আবরণকে কৌতূহলবশত টান দিতে দেখতে পেল এই অদ্ভুত কাণ্ড। সে জুপ জারের আবরণটি টান দিতে না দিতেই দেখতে পেল মাছ ঝাঁকে ঝাঁকে বের হচ্ছে। সেখানে মাছের অভাব নেই।ঝাঁকে ঝাঁকে মাছ বের হচ্ছে। কাদার সাথে লেগে আছে হাজারো মাছ।সে অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইল।

সে কিছু না ভেবে মাছগুলোকে ধরতে লাগলো। এত এত মাছ ছিল যে তার কাছে থাকা বাতিটিও সে মাছের কাছে কম পড়ে গেল। উপায়ন্তর না পেয়ে সে একটি বালতি নিয়ে আসলো সে আবার তার দেখা মাছগুলোকে ধরতে লাগলো।জীবনে এত মাছ সে আগে কখনো দেখিনি। সে আবারও ঘাসের আবরণ তুলল সেখানেও সব দেখতে পেল তার দেখা আগের মত অদ্ভুত কান্ড।

সেই অদ্ভুত কান্ড দেখে মহাখুশি।এতগুলো মাছ একসাথে দেখে তার সাথে থাকা বন্ধুটি তার ফোন দিয়ে এই দৃশ্যটি ধারণ করতে লাগল। সাথে সাথে তারা মাছগুলো কে ধরতে লাগলো।তাদের কাছে এই বিষয়টি ছিল অভাবনীয়। নিজের চোখকেও তারা যেন বিশ্বাস করতে পারছিল না। তারা ভাবছে ঘাসের আবরণে মাঝে এতগুলো মাছ কোথা থেকে আসলো।

এটি ছিল একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনা ভিডিও ধরনের মাধ্যমেই ইন্টারনেট থেকে এ খবরটি ছড়িয়ে পড়েছে।আর এই ভিডিও মানুষের মনে ব্যাপক সারা ফেলেছে। মুহুর্তে মধ্যেই ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে পরেছে এই ভিডিও। এই রকম ভিডিও মানুষ আগে কখনো দেখে নি। যার কারনে সবাই খুব আগ্রহের সাথে এটি দেখছে।

Check Also

জাল দিয়ে অভিনব পদ্ধতিতে গ্রামের পুকুরে ডুব দিয়ে তুলে নিয়ে আসছে জাল ভর্তি বড় বড় কাতলা মাছ, অবাক করা সেই ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়, তুমুল ভাইরাল সেই ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন আশ্চর্যজনক ঘটনা দিলেই ভাইরাল হয়ে যায়। সেটা নাচ, গান, মাছ ধরা, …