Sunday , July 25 2021
Home / News / ২৭ তলার বিলাসবহুল বাড়ি, রয়েছে ৬০০ জন কর্মচারী : এক নজরে দেখুন মুকেশ আম্বানির বাড়ির অন্দরমহল

২৭ তলার বিলাসবহুল বাড়ি, রয়েছে ৬০০ জন কর্মচারী : এক নজরে দেখুন মুকেশ আম্বানির বাড়ির অন্দরমহল

বিশ্বের প্রথম ১০ জন ধনকুবের এর তালিকা তৈরি করলে তার মধ্যে আসবে মুকেশ আম্বানির নাম। আর ধনকুবের হওয়ার সাথে সাথেই তিনি থাকেনও একদম রাজার হালে। মুম্বাইয়ে তার বিখ্যাত বাড়ি ‘অ্যান্টিলা’। প্রাসাদোপম এই বাড়িতেই স্ত্রী, পুত্র, বৌমা নিয়ে থাকেন মুকেশ আম্বানি। ব্লুমবার্গের রিপোর্ট অনুযায়ী, সমগ্র এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি মুকেশ আম্বানি। তাঁর মোট সম্পদের পরিমাণ ৬.০৯ লক্ষ কোটি টাকা।

এমন ধনী ব্যক্তির জীবনযাপনও যে খুব বিলাসবহুল হবে সেকথা বলাই বাহুল্য। মুম্বাইয়ে মুকেশ আম্বানির বিখ্যাত বাড়ি ‘অ্যান্টিলা’। ২৭ তলার এই প্রাসাদটিকে নিজের মনের মতো করে বানিয়েছেন মুকেশ আম্বানি। আটলান্টিক মহাসাগরের নাম অনুসারে তার এই বাড়ির নামকরণ করেছেন তিনি। প্রায় ১০০ কোটি পাউন্ড খরচ করে বাড়িটিকে নিজের মতো করে সাজিয়ে তুলেছেন তিনি।

৫৭০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট এই বাড়িটি ২৭ তলার হলেও, আসলে এটি প্রায় ৪০ তলার সমান উঁচু। বাড়ির মধ্যেই আধুনিক বিশ্বের সমস্ত সুযোগসুবিধা রয়েছে। হেয়ার স্পা, স্যালো‌ঁ, বলরুম, সুইমিংপুল, যোগা স্টুডিও, ড্যান্স স্টুডিও থেকে শুরু করে সমস্ত রকম আধুনিক সুবিধা আছে অ্যান্টিলায়। একটি আইসক্রিম পার্লার এবং একটি ব্যক্তিগত থিয়েটারও আছে মুকেশ আম্বানির এই বাড়িতে, যেখানে ৫০ জন মানুষ একসঙ্গে বসতে পারবে।

অ্যান্টিলার ১৬ তলায় রয়েছে একটি বিশাল পার্কিং, যেখানে একসাথে ১৬৮ টি গাড়ি রাখা যেতে পারে। মোট ৯টি এলিভেটর আছে বাড়িতে একটি তলা থেকে আর একটি তলায় যাওয়ার জন্য। এমনকি হেলিকপ্টার ল্যান্ড করার জন্য অ্যান্টিলার ছাদে তিনটি হেলিপ্যাডও আছে। মুকেশ আম্বানির এই স্বপ্নের বাড়িটি ইংল্যান্ডের বাকিংহাম প্যালেসের পর বিশ্বের দ্বিতীয় সবচেয়ে দামি বাড়ি। শিকাগোর পারকিন্স এন্ড উইল কোম্পানি এবং অস্ট্রেলিয়ার লেইটন হোল্ডিং কোম্পানি মিলে তৈরি করেছে এই প্রাসাদটি।

বাড়ির পুজো করার জন্য বাড়ির মধ্যেই একটি বিশাল মন্দির আছে। মুম্বাইয়ের তীব্র গরমেও কোনো অসুবিধা হয় না মুকেশ আম্বানির এই বাড়িতে। তীব্র গরমেও বাড়িতেই বরফ যুক্ত ওয়েদার পেয়ে যান তাঁরা। এত বড় বিশাল বাড়িতে থাকেন মাত্র পাঁচজন। মুকেশ আম্বানি, স্ত্রী নীতা আম্বানি, পুত্র আকাশ আম্বানি, পুত্রবধূ শ্লোক মেহতা আম্বানি এবং তাদের সদ্যোজাত সন্তান পৃথিবী আম্বানি। কিন্তু এই ছোট্ট পাঁচজনের পরিবারের দেখাশোনা করার জন্যই প্রায় ৬০০ জন কর্মচারী কাজ করেন।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

Check Also

কঠোর লকডাউন দেখতে উৎসুক জনতার ভিড়, আটক ২১

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়াকড়ি ও সাধারণ মানুষের ঢিলেঢালা ভাবের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামে লকডাউনের প্রথম দিন ...

You cannot copy content of this page